প্রেমে ব্যর্থ হয়ে কৌশলে প্রেমিকাকে হত্যা!

শনিবার, ০১ আগস্ট ২০২০ | ২:৫৭ অপরাহ্ণ

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে কৌশলে প্রেমিকাকে হত্যা!

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রী মুশফিরাত জাহান নিঝুমকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া জুয়েল রানা (২১) গতকাল শুক্রবার বিকেলে আদালতে তার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করেছেন। জুয়েল নীলফামারীর কিশোর উপজেলার সদর ইউনিয়নের মধ্যরাজিব চেংমারী গ্রামের আনছার আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়, গত ২৭ জুলাই বাড়ির পাশের একটি ডোবা থেকে ওই কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের মধ্য রাজীব ব্রাহ্মণপাড়া গ্রামের গোলাম মর্তুজার মেয়ে এবং নীলফামারী সরকারী মহিলা কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্রী। তাঁর হত্যারহস্য উদ্ঘাটনে জুয়েল রানাকে আটক করা হয় গতকাল সকালে। এসময় পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেন জুয়েল। বিকেলে তাকে আদালতে নেওয়া হলে সেখানেও হত্যার দায় স্বীকার করে জবানবন্দি প্রদান করেন।



 

জুয়েলের জবানবন্দির বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ২০১৭ এবং ২০১৮ সালের দিকে ওই ছাত্রীর সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। এরপর তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে তৌফিক নামে একজনের সঙ্গে সম্পর্ক করেন নিঝুম। এরপর থেকে জুয়েরের সঙ্গে নিঝুমের কথাবার্তা বন্ধ হলে গত জুন মাসে মুঠোফোনে কথা হয়। তখন জুয়েল জানায়, তাকে (নিঝুম) এখনো তিনি (জুয়েল) ভুলতে পারছে না। এজন্য কবিরাজের তন্ত্র-মন্ত্রের মাধ্যমে সম্পর্ক ছিন্নের প্রস্তাব দিলে সরল বিশ্বাসে রাজি হয় নিঝুম। একপর্যায়ে তন্ত্রমন্ত্রের কাজে গত ২৬ জুলাই রাতে সুপারি বাগানে ডেকে নিয়ে যায় জুয়েল। সেখানে নিঝুমকে তৌফিকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের প্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় শ্বাসরোধে নিঝুমকে হত্যা করে জুয়েল। হত্যার পর বাগানের পাশের ডোবায় লাশ ফেলে পালিয়ে যায় জুয়েল।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল বলেন, ওই ছাত্রীর সরল বিশ্বাসের ওপর ভর করে হত্যাকাণ্ডে নেওয়া হয়েছিল নানা কৌশল। পুলিশ এসব কৌশল ভেদ করে হত্যাণ্ডের মূল রহস্যে পৌঁছে হত্যাকারী জুয়েল রানাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার একটি হত্যা মামলা দায়ের করে জুয়েলকে আদালতের মাধ্যমে বিকালে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

Development by: webnewsdesign.com