নরসিংদীতে খাদিজার বিরুদ্ধে বিয়ের নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ    

বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন ২০২০ | ৫:০৯ অপরাহ্ণ

নরসিংদীতে খাদিজার বিরুদ্ধে বিয়ের নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ    

সরল সোজা মানুষকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিয়ে করে কিছুদিন ঘর সংসার করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে যান। নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়ন বিড়িন্দা টেক এলাকার বিএনপি নেতা খোরশেদ আলম খোকন এর বড় মেয়ে খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফে বৃষ্টি। বিয়ে হওয়ার পর স্বামীর কাছে টাকা দাবি করেন। যদি তার স্বামী টাকা না দিতে চায় তাহলে ঐ স্বামীর নামে মিথ্যা বানোয়াট মন গড়া মামলা দিয়ে হয়রানি শুরু করেন।জানা গেছে, ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটা বিয়ে করে ঐ স্বামী গুলোর কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে তাদেরকে তালাক দেন।

এর আগে নরসিংদী জেলার মাধবদী নোওয়া পাড়া এলাকার সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ ইয়াবা ব্যবসায়ী রাজনকে এই খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফে বৃষ্টি বিয়ে করেন।শুধু তাই নয় স্বামীর সাথে ও ইয়াবা বিক্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে তার নামে। এই সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ রাজনের সাথে সংসার করার মাঝে পরিচয় হয় মোঃ রফিকুল ইসলাম এর সাথে। এর পর থেকে খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফ বৃষ্টি বিভিন্ন সময় ফোন দিয়ে তার সাথে কথা বলতো ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলাম সাথে।অনুরোধ করে দেখা করতো আপনার সাথে একটা ছবি তুলতে চাই প্লিজ এমন বলে কয়েকটা ছবি তুলে নিয়ে গেছে।



শুধু তাই নয় সুকৌশলে বুদ্ধি করে ফাঁদে ফেলে রফিকুল ইসলাম কে বিয়ে করে তার পর থেকে প্রতারণা শুরু করেন। এক পর্যায়ে রফিক এর কাছে টাকা দাবি করেন। আর বলে তুই যদি টাকা না দেস তাহলে তর নামে মামলা করবো আরো বলবো তুই আমাকে মারোস। আমার নিজের শরীর থেকে রক্ত বের করে তোকে ফাঁসাবো। এমন হুমকি ধামকি দিতে থাকলে এক পর্যায়ে কিছু টাকা রফিক খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফে বৃষ্টি কে দেন।এখন বর্তমানে ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলাম এর কাছে ২০ লক্ষ টাকা ও নেশা করার জন্য ইয়াবা মদ সহ মাদকদ্রব্য এনে দিতে বলে।

রফিকুল ইসলাম টাকা ও নেশার জন্য মাদকদ্রব্য দিতে রাজি না হওয়ার কারনে তার নামে মিথ্যা বানোয়াট মামলা দেওয়া হয়েছে। ফোন করে বলেন আমি যা চাইছি তা না হলে তাহলে তোকে জেল হাজতে ঢুকাবো আর টাকা দিলে মামলা তুলে নিবো। প্রতারক খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফে বৃষ্টির নামে বিভিন্ন থানায় অভিযোগ ও জিডি রয়েছে।এ বিষয় প্রতারক খাদিজা আক্তার প্রেমা ওরফে বৃষ্টি এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নাই।

Development by: webnewsdesign.com