যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে শিক্ষকের স্ত্রীর গলায় ফাঁস

বুধবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৯:৪০ অপরাহ্ণ

যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে শিক্ষকের স্ত্রীর গলায় ফাঁস

দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যথায় ভুগছিলেন ময়না বেগম নামের এক গৃহবধূ। বেশ কয়েকদিন ধরে সেই ব্যথাটি অসহ্য যন্ত্রণার পর্যায়ে পৌঁছে যায়। তাই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে ফাঁস দেয়ার মতো আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত বেছে নেন। এতে নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েন তিনি।
বুধবার দুপুরে মাদারীপুরের কালকিনির উত্তর রাজদী গ্রাম থেকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। মৃত গৃহবধূ ওই উপজেলার ডাসার থানার পশ্চিম কোমলাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. সাগর হোসেনের স্ত্রী।

পুলিশ ও স্বজনরা জানায়. ময়না দীর্ঘদিন ধরে পেটের ব্যাথায় ভুগছিলেন। হঠাৎ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার পেটে ব্যথা তীব্র হয়। এতে ব্যথার যন্ত্রণা সইতে না পেরে গভীর রাতে তিনি নিজ ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দেন তিনি। সকালে ঘরের জানালার ফাঁক দিয়ে ঝুলন্ত ময়নাকে দেখে থানায় খবর দেন স্বজনরা। পরে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

 

 

 

কালকিনি হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. রেজাউল করিম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ময়না পেটের ব্যথায় আক্রান্ত ছিলেন। সেই ব্যথা থেকে মুক্তি পেতে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন।

কালকিনি থানার ওসি (তদন্ত) হারুন অর রশিদ বলেন, ময়না আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Development by: webnewsdesign.com