সংসদে ইসির পদত্যাগ চাইল বিএনপি

মঙ্গলবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৮:২০ অপরাহ্ণ

সংসদে ইসির পদত্যাগ চাইল বিএনপি

সদ্য শেষ হওয়া ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন পরিচালনায় ব্যর্থতার দায় নিয়ে পদত্যাগের দাবি জানিয়েছেন বিএনপির সংসদ সদস্য হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, যে নির্বাচনে ওয়ান থার্ড ভোটার উপস্থিত নেই, সেই নির্বাচনের কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই। নির্বাচন কমিশন ভোট গ্রহণের ক্ষেত্রে টোটালি ব্যর্থ এবং অযোগ্য। এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সরে যাওয়া উচিত।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে একদশ সংসদের ষষ্ঠ অধিবেশনে মঙ্গলবার অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই দাবি জানান।

 

 

 

 

 

 

 

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন তুলে হারুনুর রশিদ আরও বলেন, পহেলা ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে গেল। নির্বাচন কমিশনের দেয়া ফলাফল অনুযায়ী একটি সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে মাত্র ২৪ শতাংশ ভোট পড়েছে। আরেকটি সিটিতে মাত্র ২৭ শতাংশ ভোট পড়েছে। যেখানে এক তৃতীয়াংশ ভোটার উপস্থিত হল না, এই নির্বাচনের কি কোনো গ্রহণযোগ্যতা আছে? এখানে সিংহভাগ মানুষ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারল না, তাদের মতামত ও রায় দিতে পারল না, সেই নির্বাচনের কি কোনো বৈধতা আছে? এছাড়া আজকের একটি পত্রিকায় এসেছে যে ইভিএম এর ফলাফল পরিবর্তন করা হয়েছে। অথচ নির্বাচন কমিশন বলছে  ইভিএমে কিছু করা যায় না।

বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব হারুনুর রশিদ আরও বলেন, এই ইসির আমল ছাড়া অতীতে কোনো সময় স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বা জাতীয় নির্বাচনে ৫০ ভাগের কম ভোটের নজির নেই। সংবিধান যখন প্রণয়ন করা হয়েছিল বাংলাদেশের কোথাও নির্বাচনে ৩০ ভাগের কম ভোটার উপস্থিতি ৩০ শতাংশ ভোটারের উপস্থিতি ছাড়া নির্বাচন গ্রহণযোগ্য ছিল না। থাকলে তখন সেখানে সংখ্যা নির্ধারণ করে দেওয়া হত, ৩০ শতাংশ ভোটারের উপস্থিতি ছাড়া নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না। তিনি আরো বলেন, এই সরকার এবং ইসি ভোটগ্রহণের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। ‘অযোগ্য অপদার্থ’ নির্বাচন কমিশনের এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সরে যাওয়া উচিত। নির্বাচন কমিশন এ অবস্থা থেকে অবিলম্বে আমাদের মুক্তি দিবে বলে আমরা আশাবাদ ব্যক্ত করি।

Development by: webnewsdesign.com