পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়া সেই বাঘিনী স্ত্রী আটক

বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারি ২০২০ | ৬:৪৬ অপরাহ্ণ

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নেওয়া সেই বাঘিনী স্ত্রী আটক

পরকিয়া প্রেমে বাধা দেয়ায় স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়েছে স্ত্রী শারমিন আক্তার শিলা(৩০)। আহত সোহাগ হোসেনকে(২২) প্রথমে মহেশপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) বিকেলে ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার জাগুসা গ্রামের শিলার বাবার বাড়িতে এঘটনা ঘটে। শিলা ওই গ্রামের দক্ষিণপাড়ার জসিমের মেয়ে। এঘটনায় স্থানীরা শিলাকে ধরে পুলিশে দিয়েছে। সোহাগ হোসেন একই উপজেলার যাদবপুর উত্তরপাড়ার শফিউল্লাহ ওরফে পান্নু মিয়ার ছেলে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সোহাগ হোসেন জানান, শারমিন আক্তার শিলার দুইবছর আগে একবার বিয়ে হয়। স্থানীয় একটির ছেলের সাথে প্রেম থাকায় তার সংসার টেকেনি। সেখানে তালাক দিয়ে দুইমাস আগে আমার সাথে শিলাকে তার বাবা-মা বিয়ে দেয়। বিয়ের পর সেই ছেলের সাথে কথা বলতে নিষেধ করায় সে রাগ করে ১৫ দিন আগে বাবার বাড়িতে চলে যায়।

 

 

 

 

 

 

মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) ফোনে আমাকে আসতে বললে বুধবার সকালে আসি। বিকেলে ঘরে ঘুমিয়ে পড়লে ধারালো অস্ত্র দিয়ে পুরুষাঙ্গ আঘাত করে। এতে পুরুষাঙ্গ মারাত্মক জখম হয়। স্থানীয়রা সোহাগকে প্রথমে মহেশপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিকেলে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়।

সোহাগের বড়বোন জেসমিন জানান, বিয়ের পর থেকে সোহাগের সাথে তার স্ত্রী শিলা প্রায় ঝগড়া করতো। রাগ করে ১৫ দিন আগে বাবার বাড়িতে চলে আসে। তার ভাইকে জীবনে শেষ করার জন্য ডেকে এনে এঘটনা ঘটিয়েছে।

শারমিন আক্তার শিলার পিতা সিরাজ জানান, শিলা যা করেছে তা খুব অন্যায় করেছে। তাই তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছি। সোহাগকে মামলা করার পরামর্শ দিয়েছি।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের সার্জারী বিভাগের স্টাফ নার্স নারগিস ইসলাম জানান, ডাক্তার মনিরুজ্জামান লর্ড সোহাগের চিকিৎসা দিয়েছেন। ২৪ ঘন্টা পার না হলে কিছু বলা যাবে না বলে চিকিৎসকের উদ্বৃতি দিয়ে তিনি জানান।

মহেশপুর থানার ওসি মোহাম্মদ মোর্শেদ হোসেন খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, স্ত্রী শারমিন আক্তার শিলাকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করেছে।

Development by: webnewsdesign.com