এক হচ্ছেন শাকিব-অপু!

বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারি ২০২০ | ২:০৯ অপরাহ্ণ

এক হচ্ছেন শাকিব-অপু!

একসময়ের জনপ্রিয় জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ওইসময় তাদের ছাড়া সিনেমায় ভাবা যেত না। কোন সিনেমায় এই দুই তারকা জুটি বাধলে হলে ছুটে যেতেন হাজারো দর্শক। তবে সেই জুটিরও পতন হয়েছে।

যার ফলে অনেক দর্শক সিনেমা থেকে মুখও ফিরিয়ে নিয়েছেন। তাদের অনেকেই শাকিবের কারণে হলবিমুখী হয়েছেন আবার অনেকেই অপুর কারণ হল ছেড়েছেন। কারণ সিনেমাপ্রেমিদের একটা বড় অংশ শাকিব-অপুর প্রেমে মুগ্ধ ছিলেন।

যাইহোক, সেই সব হলবিমুখীদের এবার সুখবর দিলেন অমিত হাসান। জানালেন, শাকিব-অপুকে আবার এক করবেন তিনি। সম্প্রতি একটি এফএম রেডিওরর এক টকশোতে এসে এমন ইচ্ছার কথা জানালেন নায়ক অমিত হাসান।

টকশোতে সঞ্চালক অমিত হাসানকে প্রশ্ন করেন, যদি নিজের প্রযোজনায় কোন ছবি নির্মাণ করেন তাহলে সেই ছবিতে কারা অভিনয় করবেন? জবাবে এই অভিনেতা বলেন, আমি যদি সিনেমা প্রযোজনা করি তাহলে অবশ্যই শাকিবকে নেব। কারণ এই সময় শাকিবকে অতিক্রম করার মত কোন নায়ক নির্ভরযোগ্য হয়ে উঠেনি। এছাড়া তার সঙ্গে নায়িকা হিসেবে থাকবে অপু।

অমিত আরও বলেন, শুধু তাই নয় একই ছবিতে চিত্রনায়ক সাইমন ও বাপ্পীকেও নিব। আমি তাদেরকে বোঝাবো যে, এখন যার যে অবস্থান সেই অবস্থা বিবেচনা করেই সেরকম চরিত্রে এই তিনজনকে নিব। ছবিতে সবারই গুরুত্ব থাকবে। তাদের নায়িকা হিসেবে থাকবে পরীমনি ও মাহি।

শাকিব ও অপুকে কেন এক সিনেমায় নিতে চান সেই প্রশ্নের উত্তরে অমিত হাসান বলেন, আমি অবশ্যই শাকিবের সাথে অপুকে নিব। তাদের দুজনকে এক করবো। কারণ তাদের জুটিতে অনেক সফল ছবি রয়েছে।

তিনি আরও জানান, তারা যদি এক সাথে কাজ না করেন তাহলে পপিকে নিয়ে সিনেমা বানাবো। কারণ শাকিবের সাথে পপিরও অনেক সফল সিনেমা রয়েছে। আমার ইচ্ছা, পুরনো কোন সফল জুটিকে এক করার। ইন্ডাস্ট্রিটাকে আবার নতুন করে দাঁড় করবার। তবে বিগ বাজেটের ছবি হবে এটি।

১৯৮৬ সালে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন অমিত হাসান। ১৯৯০ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘চেতনা’। ছবিটি পরিচালনা করেন ছটকু আহমেদ। একক নায়ক হিসেবে তিনি প্রথম অভিনয় করেন মনোয়ার খোকনের ‘জ্যোতি’ চলচ্চিত্রে। এরপর তিনি উপহার দিয়েছেন ‘প্রেমের সমাধি’, ‘শেষ ঠিকানা’,‘তুমি শুধু তুমি’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘জিদ্দী’, ‘বিদ্রোহী প্রেমিক’, ‘রঙিন উজান ভাটি’, ‘ভালবাসার ঘর’র মতো জনপ্রিয় সব চলচ্চিত্র।

নায়ক হিসেবে যতটা না সফল হয়েছেন অমিত হাসান, ঠিক খলনায়ক হয়েও তিনি সফল। অভিনয় করেছেন ৬শ’র মতো চলচ্চিত্রে। অমিত হাসান বর্তমানে ব্যস্ত আছেন ‘ইয়েস ম্যাডাম’সহ বেশ কিছু চলচ্চিত্র নিয়ে।

সম্প্রতি তিনি চলচ্চিত্র শিল্প সংশ্লিষ্টদের সংগঠন বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাব লিমিটেডের নতুন সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন।

Development by: webnewsdesign.com