হবিগঞ্জে জেরিন হত্যা : ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলনের নির্দেশ

রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০ | ৬:০৮ অপরাহ্ণ

হবিগঞ্জে জেরিন হত্যা : ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উত্তোলনের নির্দেশ

হবিগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষার্থী মদিনাতুল কিবরিয়া জেরিন হত্যার ঘটনায় লাশের ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে লাশ উত্তোলন করার আদেশ প্রদান করেছে আদালত। আজ রবিবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর আক্তার এই আদেশ প্রদান করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মদিনাতুল কিবরিয়া জেরিনকে প্রেমে সাড়া না দেওয়ায় গত ১৮ জানুয়ারি সকালে সদর উপজেলার রিচি এলাকায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে ফেলে গুরুতর আহত করে। পরদিন সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহতের পরিবার প্রথমে এটিকে সড়ক দুর্ঘটনা মনে করে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করে ফেলে। পরে বিষয়টি পরিকল্পিত জানার পর জেরিন এর পিতা আব্দুল হাই হত্যা মামলা দায়ের করা হলে পুলিশ দ্রুত রহস্য উদঘাটন করে এবং এর সাথে জড়িক জাকিরকে গ্রেপ্তার করে। পরে আদালতে জাকির এই ঘটনার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। তবে তার সহযোগীরা এখনও পলাতক।

 

 

 

 

মামলার তদন্তের স্বার্থে রবিবার আদালতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেরিনের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্ত করার প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ আদালত তা মঞ্জুর করেন।

হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি মাসুক আলী জানান, যেহেতু আদালতের আদেশ পাওয়া গেছে এখন আমরা দ্রুত জেরিনের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের কাজ শেষ করব। তবে এর আগে আরো কিছু প্রক্রিয়া রয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হলে তার নেতৃত্বেই লাশ উত্তোলন করা হবে।

প্রসঙ্গত, সদর উপজেলার ধল গ্রামের আব্দুল হাইয়ের মেয়ে এবং রিচি উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী জেরিনের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা ছিল। সে সকল শ্রেণিতেই প্রথম স্থান অর্জন করত। ১০ম শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগেও সে ছিল প্রথম। পিইসি ও জেএসসি পরীক্ষায় এ প্লাস এবং বৃত্তি পায়। তাকে প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করত এই গ্রামের দিদার হোসেনের ছেলে জাকির হোসেন জাকির। প্রেমে সাড়া না দেওয়ায় গত ১৮ জানুয়ারি সকালে সদর উপজেলার রিচি এলাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকশা থেকে ফেলে জেরিনকে গুরুতর আহত করে। পরদিন সিলেটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ওই দিন রাতেই জেরিনের পিতা আব্দুল হাই হবিগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। স্থানীয়রা প্রথমে বিষয়টি সড়ক দুর্ঘটনা মনে করলেও পুলিশি তৎপরতায় প্রকৃত রহস্য বেড়িয়ে আসে।

Development by: webnewsdesign.com