একদল হনুমান ঢুকে পড়েছে শ্রীমঙ্গল শহর থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা পাড়ায়

শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০ | ৬:৫১ অপরাহ্ণ

একদল হনুমান ঢুকে পড়েছে শ্রীমঙ্গল শহর থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা পাড়ায়

একদল হনুমান ঢুকে পড়েছে শ্রীমঙ্গল শহর থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা পাড়ায়। এরা দল বেঁধে খেয়ে ফেলছে বসতবাড়ির শিম, কচি ডাব, গাছের আলু, আতাফল, বড়ই, তেতুঁল, কলাসহ বিভিন্ন ফলমূল। দিনভর গাছের ডালে ডালে ঘুরে এরা বিচরণ করছে। গতকাল এলাকার রহমান মিয়া, হাজী আহম্মেদ উল্লা ও রফিক মিয়া জানান, ১০ দিন ধরে এলাকায় হনুমানের দল এসেছে। প্রথমে তিনটি দেখা গিয়েছিল। এখন ১২ থেকে ১৫টি দেখা যাচ্ছে। হনুমানরা এলাকার বিভিন্ন বাড়ির শিম, নারকেলের কটি, গাছের আলু, আতাফল, বড়ই, তেতুঁল, কলা খেয়ে ফেলছে। ঘড়ের চালে বা বাড়ির ছাদে এরা ছোটাছুটি করছে। স্থানীয় ফয়জুনেছা বেগম জানান, এরা তার নারিকেলের গাছের কটি, শিম ও গাছের তেতুঁল নষ্ট করে ফেলেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এরা ঘুরে বেড়াচ্ছে এবাড়ি থেকে ওবাড়ি। খাচ্ছে আঙ্গিনার ক্ষেত-খামারে লাগানো সবজি, ফলমূল।

স্থানীয়রা জানান, এই হনুমানদের নিরাপত্তার জন্য কুমিল্লা পাড়ায় ছুটে গেছেন শ্রীমঙ্গলের র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরাও। তারা ওই এলাকার মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছেন, কেউ যেন হনুমানদের না মারে। স্থানীয় বন কর্মকর্তারাও গিয়ে দেখে এসেছেন হনুমানদের।  এ বিষয়ে বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মোনায়েম হোসেন বলেন, ‘পার্শ্ববর্তী সাতগাঁও ফরেস্ট থেকে হনুমানগুলো এসেছে। এখন এদের প্রজননের সময়। এ সময়ে স্ত্রী ও পুরুষ হনুমানরা একজন আরেকজনের জন্য ছোটাছুটি করে। নির্দিষ্ট সময় পরে এরা আবার চলে যাবে।’ শ্রীমঙ্গল র‌্যাব-৯ ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর ইসতিয়াক বিন ইউসুফ বলেন, ‘বন্যপ্রাণীগুলো এলাকার লোকজনকে যন্ত্রণা করছে খবর পেয়ে আমরা ওখানে গিয়েছিলাম। হনুমান দেশের সম্পদ। অজ্ঞতার কারণে মানুষ যাতে তাদের হত্যা না করে- সে বিষয়ে সচেতন করা হয়েছে।’

Development by: webnewsdesign.com